Type Here to Get Search Results !

শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণদেবের উপদেশ থেকে অমৃতকথা

শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণদেবের উপদেশ থেকে অমৃতকথা

জীবাত্মা ও পরমাত্মা কিরূপ? যেমন স্রোতের জলে একটা লাঠি বা তক্তা আড় করে ধরলে দু ভাগ দেখায়, তেমন অখণ্ড পরমাত্মা মায়ারূপ উপাধি দ্বারা দু ভাগ দেখায়।

যেমন জল ও জলের বুদ্বুদ। এক বুদ্বুদ যেমন জলেই ওঠে, জলেই থাকে ও জলেই মেশায়, তেমন জীবাত্মা পরমাত্মা একই, তফাৎ এই যে, বড়ো ও ছােটো—আশ্রয় ও আশ্রিত। সমুদ্রের জল দূর থেকে কালাে দেখায়, কাছে গেলে তা নয়—স্বচ্ছ নির্মাল। কৃষ্ণের রূপ দূর থেকে কালাে দেখায়, কাছে গেলে তা নয়—স্বচ্ছ নির্মল | কলের জাহাজ নিজে অনায়াসে চলে যায় ও বড় বড় গাধা বােটকে টেনে নিয়ে যায়, তেমন মহাপুরুষ যখন আসেন, তখন তিনি অনায়াসে বদ্ধ লােকদের টেনে নিয়ে যান।

যখন বন্যা আসে তখন খান, ডােবা সমস্ত ভাসিয়ে নিয়ে যায়। বৃষ্টিতে সামান্য নালা দিয়ে কষ্টে জল যায় মাত্র। যখন মহাপুরুষ আসেন; সকলেই তাঁর কৃপায় তরে যায়। সিদ্ধ লােকে কষ্টে-সৃষ্টে আপনি ঈশ্বর লাভ করে চলে যান। বড় বড় বাহাদুরী কাঠ যখন ভেসে যায়, তখন কতাে লােক তার উপর চড়ে ভেসে যায়। তাতে সে ডােবে না। হাবাতে কাঠে সামান্য একটা কাক বসলেই ডুবে যায় তেমন যখন মহাপুরুষ আসেন; কত লােক তাঁকে আশ্রয় করে তরে যায়। সিদ্ধ লােক নিজে কষ্টে-সৃষ্টে যায় মাত্র।

রেলের ইঞ্জিন আপনি চলে যায় ও কতাে মাল বােঝাই গাড়ি টেনে নিয়ে যায়। অবতারেরাও সেইরকম পাপ বােঝাই সংসারী লােকদের ঈশ্বরের কাছে টেনে নিয়ে যায়। সাধু মহাজনদের নিকটস্থ আত্মীয় লােকেরা অগ্রাহ্য করে, দূরের লােকদের কাছে তাঁদের আদর হয়, এর কারণ কি?

বাজীকরের বাজী তাদের আত্মীয় লােকেরা দেখে না, দূরের লােক দেখে অবাক হয়ে যায়। বজ্ৰ বাটুলের বিচি গাছের তলায় পড়ে না, উড়ে গিয়ে দরে পড়ে ও সেখানে গাছ হয়। সেইরকম ধর্ম প্রচারকদের ভাব দূরেতেই প্রকাশ হয় ও লােকে আদর করে। লণ্ঠনের নাচে অন্ধকার থাকে, দূরে আলাে পড়ে। সেই রকম মহাপুরুষদের কাছের লােকেরা বুঝতে পারে না, দুরের লােকেরাই তাঁদের ভাবে মুগ্ধ হয়। যাঁর কাছে যা কিছু শিক্ষা পাই, তাঁকে গুরু না বলে নির্দিষ্ট এক ব্যক্তিকে গুরু বলবার প্রয়ােজন কি?

ব্যাকুল প্রাণে যে তাঁকে ডাকে, তার কিছুই প্রয়ােজন নেই। কিন্তু সচরাচর সেই রকম ব্যাকুলতা দেখা যায় না বলেই গুরুর প্রয়ােজন হয়। গুরু এক, কিন্তু উপগুরু অনেক হতে পারে। যাঁর কাছে কিছু শিক্ষা পাই,—তিনিই উপগুরু। অবধূত এই রকম চর্বিশটি উপগুরু করেছিলেন।

যেমন কোন অচেনা জায়গায় যেতে হলে যে জানে এমন একজনের কথামতাে চলতে হয়, অনেককে জিজ্ঞাসা করলে পথ গােল হয়ে যায়; সেই রকম ঈশ্বরের কাছে যেতে গেলে গুরুর কথামতাে চলতে হয়। এর জন্য একজন গুরুর প্রয়ােজন হয়। একদিন মাঠের উপর দিয়ে যেতে যেতে অবধত দেখতে পেলেন, সামনে ঢাক ঢোল বাজাতে বাজাতে মহা জাঁকজমকে একটা বর আসছে, পাশে একটা ব্যাধ এক মনে আপনার লক্ষ্যের দিকে চেয়ে আছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad